আজ ফাইনালে মুখোমুখি বাংলাদেশ-আফগানিস্তান

ফাইনালে চাপকে জয় করতে হবে, আফগানিস্তানকে হারাতে সামর্থ্যের সেরাটা দিতে বলেছেন টাইগার হেডকোচ রাসেল ডমিঙ্গো। রশিদ-মুজিবদের স্পিন সামলে শিরোপা জিততে আশাবাদী স্বাগতিকেরা। অন্যদিকে হ্যামস্ট্রিং চোটে ফাইনালে রশিদ খানকে নিয়ে শঙ্কায় আফগানরা। তবে বাকিদের ওপর পূর্ণ আস্থা আছে অধিনায়কের। শেরে-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফাইনাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায়।

বিশ্বকাপের ঠিক আগেই প্রথমবারের মতো ওডিআই ট্রাইনেশন জিতেছিলো টিম টাইগার্স, এবারে ছোট ফরম্যাটেও সেই সুযোগ সামনে। পরিচিত কন্ডিশনে আফগানদের হারাতে পারলেই হাতে উঠবে শিরোপা।

সাইফুদ্দীনের মতে কাজটা কঠিন নয়, মাঠে সামর্থ্যের ৬০ থেকে ৭০ ভাগই দিলেই চলবে। কিন্তু বাস্তবতা জানেন এবং বুঝেন কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। তিন বলছেন সামর্থ্যের শতভাগ দিলেও ম্যাচ বের করা আনা সহজ হবে না। প্রতিপক্ষের ভুল-ত্রুটিও কাজে লাগাতে হবে শতভাগ।

বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেন, অবশ্যই আমাদের ভালো খেলতে হবে, সামর্থ্যের সেরাটা খেলতে হবে। আমরা ৬০-৭০ ভাগ খেললেই জিতে যাবো এমনটা ভাবার কারণ নেই। তবে আফগানিস্তানকে যদি তাদের ৬০-৭০ ভাগের মধ্যে আটকে রাখতে পারি, তাহলে আমাদের জন্য ভালো হবে।

আফগান স্পিনা সবসময় ভোগায় টাইগারদের, সমস্যা যতোটা না টেকনিকে তার চেয়ে বেশি মানসিকতায়। রিয়াদ-মুশফিকদের আফগান স্পিন ভীতি কাটাতে কাজে নেমেছে কোচিং স্টাফ।

বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো আরো বলেন, মুজিব ও রশিদ এখন স্পিনে অনেক বড় নাম। শুধু আমাদের ব্যাটসম্যানরা নয়, সবারই বিশ্বমানের এই দুই স্পিনারের বিপক্ষে ভোগান্তি হয়। আমরা নেটে চেষ্টা করছি ওদের খেলার উপায় বের করতে। মানসিকতা নিয়ে, পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছি। কিন্তু রাতারাতি এসব আয়ত্ত করা সম্ভব নয়।

হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট নিয়েও অনুশীলনে ব্যাটিং-বোলিং করেছেন রশিদ খান, শেষ পর্যন্ত মাঠে নামবেন কিনা তা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে রশিদ না থাকলেও যে টাইগার ব্যাটসম্যানদের কাজটা সহজ হবে না, তা নিজেই মনে করিয়ে দিলেন আফগান অধিনায়ক।

আফগানিস্তানের অধিনায়ক রশিদ খান মনে করেন, এখনও আমি নিশ্চিত নয় মাঠে নামতে পারবো কিনা, সময় আছে দেখা যাক কি হয়। তবে আমি না নামলেও দলের খুব একটা সমস্যা হবে না বেশ ভালো মানের স্পিনার আছে আমাদের দলে যারা জানে কাজটা কিভাবে করতে হয়।

টানা দুই হার ধাক্কা দিয়েছে আফগান আত্মবিশ্বাসে। এটাই কাজে লাগাতে হবে টাইগারদের। চট্টগ্রামের ফর্ম টেনে আনতে হবে হোম অব ক্রিকেটে।

আরও পড়ুন